Under a Vulgar Sun
A. D. Bloom
স্বপ্রকাশিত ই-বুক

সম্প্রতি হাতে এলো A.D. Bloom-এর Under a Vulgar Sun – ছটি ফ্যান্টাসি গল্পের সংকলন। Bloom-এর লেখার মূল আকর্ষণই হলো শুরুতেই ছোট ছোট কিছু বাক্যে গল্প সম্পর্কে নিশ্চিত আবহ এবং প্রতিশ্রুতি গড়ে তোলা। এই সংকলনের কোনও গল্পই তার ব্যতিক্রম নয়। মনে হতে পারে ছোট ছোট স্ট্রোকে একটা স্কেচ গড়ে উঠছে। ফ্যান্টাসি গল্পের ক্ষেত্রে এই ছবি আঁকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং এই ব্যাপারে Bloom-এর মুনশিয়ানা পাঠককে গল্পের মধ্যে টেনে রাখে। একটা উদাহরণ দিই।
Old Sack Bones piles his inside up and makes himself tall, and he looks like a pot-bellied bearskin rug with a fringe of stolen teeth. … Besides the teeth, everything else is inside.
গল্পের নাম Hunting Mr. Old Sack Bones, যেখানে এক শিকারি অন্ধকার থেকে উঠে আসা জীব Old Sack Bones-কে আবার অন্ধকারে ফেরত পাঠাতে চাইছে। Old Sack Bone-এর আগ্রাসী রূপ অনায়াসে লেখক ফুটিয়ে তুলেছেন Superlative-এর বাহুল্যবর্জিত সাধারণ কিছু বাক্যে।
Tall as he can be, he falls like a shadow: fast and absolute. Where he falls, they find the grasses all dead, the mosses turned to ash, and the trees all blighted. But they never find what he ate because it’s all inside Old Sack Bones, and now he can get taller. Fall further. Eat something bigger.
একটু আগেই স্কেচের কথা লিখেছি। কিন্তু এই ছবিতে চড়া রঙের কোনও অবকাশ নেই। সাদাকালোতে একটা Graphic Novel গড়ে ওঠে চোখের সামনে। আপনা থেকেই একটার পর একটা ফ্রেম জায়গা করে নেয় পাঠকের মনে।
এইখানেই ইচ্ছা হয় Bloom-এর লেখার বিষয় এবং চরিত্র নির্বাচন নিয়ে কিছু বলতে। ফ্যান্টাসি হলেও কিছু গল্প কল্পবিজ্ঞানের সীমানা ছুঁয়েছে। প্রযুক্তির ঝাঁ-চকচকে ধার বা apocalyptic, post-apocalyptic সময়ের ব্যবহার গল্প নির্মাণের খাতিরে প্রয়োজন হয়েছে ঠিকই, কিন্তু সেই উপাদানের ধূসর আড়াল ব্যবহার করার সুযোগ লেখক উপেক্ষা করেছেন নির্মোহ সাহিত্যিকের মতোই। তাঁর গল্পের প্রেক্ষাপট দৃশ্যময় হয়েও জটিল মনস্তত্বে বিচরণ করে। সেখানে স্বচ্ছন্দে উঠে আসে Old Sack Bone-এর মতো চরিত্র, যার শরীর ছেঁড়াখোঁড়া একটা বস্তার আস্তরণে তার শিকারের হাড়-মাংস দিয়ে ক্রমশ বেড়ে চলা একটা ছায়াময় কাঠামো।
একইভাবে The Burning Circus-এর জ়োরা বারবার নিজের পেলব যৌবন ফিরে পায় খাঁচাবন্দি কিছু খরগোশের কোমল জীবনীশক্তি শোষণ করে।
গল্পের চরিত্রগুলোর পারস্পরিক দ্বন্দ্ব সহজ কিছু ঘটনায় লেখক তুলে ধরেছেন এবং গল্পও এগিয়ে গেছে সেই পথেই। যেমন Only Sucker Call It Luck-এর নায়ক নিজের জীবন এবং স্বপ্ন নিয়ে যথেষ্ট রক্ষণশীল। প্রাণপণে নিজের শিকড় আঁকড়ে ধরে বেঁচে থাকার মোহে সে নিজের প্রেয়সীকে বিদায় জানাতেও কুণ্ঠিত নয়। ধ্বংসের পথে এগিয়ে চলা পৃথিবীতে তার মৃত্যু নিশ্চিত জেনেও অন্য কোনও গ্রহে গিয়ে বসতি গড়তে সে রাজি নয়। অন্যদিকে গল্পের আরেক চরিত্র ক্যাসপার সবসময়ই জীবনকে বাজি রেখে নিংড়ে নিতে চায় আনন্দ। ক্রমশ ক্ষয়ে আসা পৃথিবী ছাড়তে সে অধীর। কিন্তু সে সাথে নিতে চায় এ গল্পের নায়ককেও। তাই সে শেখায় কীভাবে জুয়া খেলতে হয়, কীভাবে ছড়িয়ে দিতে হয় মৃত্যু, কীভাবে মুহূর্তের সাথে তাল মিলিয়ে খুঁজে নিতে হয় escape velocity – ফ্যান্টাসি বললে ফ্যান্টাসি, দর্শন বললে দর্শন। প্রতিটা গল্পেই পাঠককে চিন্তাভাবনার যথেষ্ট জায়গা ছেড়ে দিয়েছেন লেখক। আর তাই আকারে ছোট হলেও Tokyo Newsreel, Flashbulb Alley এবং The Ten-Foot-Tall Marine মতো গল্পগুলো পাঠকের মনোযোগ এবং সময় দাবি করে; ঝরঝরে ইংরাজিতে লেখা এই বইটি পড়ে শেষ করার পরও একাধিক পাঠের ধৈর্য্য দাবি করে।
 

ঋণঃ প্রচ্ছদের ছবিটি Amazon.com থেকে নেওয়া।