শোক

বেড়াল ছাড়াই আজ ধীরে ধীরে ঠান্ডা হয়ে আসছে রাস্তা
                     যেভাবে আমার রবিবারগুলো যায়
দরজার বাইরে দাঁড়িয়ে এই সিগারেট ধরানোর ইচ্ছে
                     হয়ত সারাজীবন বয়ে বেড়াব আমি
আমার কালো টাই দেখে অনেক দূরে শিউরে উঠবে কেউ, পিছিয়ে যাবে
সন্দেহজনক ব্যান্ডেজ ডানহাতে জড়াতে জড়াতে
                     যেভাবে আমার রবিবারগুলো যায়


রঙ

কাগজের দোকান নেই তবু নীরবতার পর সবাই কিছু একটা খুঁজছে
জল খেয়ে আবার স্বাভাবিকভাবেই কাজ শুরু করেছে হেনরী
এমন একটা রঙ আবিষ্কার হওয়া দরকার যা স্বর্গীয় উপহারের মত
ধারনার মধ্যে যা জ্বলজ্বল করবে সবসময়, ঘুমিয়ে পড়বে না

ঘুমিয়ে পড়বে না, সর্তক থাকবে, আবার খুনসুটিও করবে মাঝেমাঝে


লোহার ব্রীজ

লোহার ব্রীজ পর্যন্ত তোমার নাম আমি জানতাম
                     ব্রীজ থেকে নেমে ভুলে যাই
উর্দি দেখে মনে হয় মশাল নেভানোর কাজ করো
                     কিন্তু মশাল কারা জ্বালায় তুমি জাননা
রাস্তার দু পাশের ঘাস বড় আর ঘন হয়ে উঠছে
                     একটু পড়েই তুমি হারিয়ে যাবে হয়ত
এত ভালোভাবে চিনি এই দরজা যে অনেকদূর পর্যন্ত
                     আমি বর্জন করতে পারব তোমাকে


রেনকোট

কিভাবে এই রেনকোট তৈরী হয় জানলে তুমি অবাক হয়ে যাবে হেনরী
কালো একটা স্নাব-নুজ রিভলবার চারদিন হন্যে হয়ে খুঁজে বেড়িয়েছে তোমাকে
একশো সাঁইত্রিশ জন হেনরী, প্রত্যেকের রেনকোট তোমার মত
এদের মধ্যে তোমাকেই হয়ত আজ নায়কের সম্মান দেওয়া হচ্ছে
যখন একজন হেনরীর কোমরে গুলি লাগছে
                     আর বলরুমে গড়িয়ে পড়ছে আরেকজন