ছাদের তে’তলায় মায়াকোভস্কি

ছাদ ফুঁড়ে জেগে উঠছে এক একটা আতশবাজি
চলে যাচ্ছে উত্তরে, কেউবা দক্ষিণে
পূবে-পশ্চিমে,
হিসেব কষে তুমি ওদের থামাতে পারবেনা
মিছিলও যাচ্ছে গোল চক্করের দিকে
ফায়ার ব্রিগেড, নারীমেলা সব ফেলে।
তুমি বুঝতে পারছোনা গতিপথ
অনেকটা পথ পেরিয়ে এলেও
পড়ে থাকছো টানেলের কোণে
ক্ষুরধার কবি, আলুর ব্যবসায়ী
ধনেপাতাফেরিকারী সকলেই চলছে ঊর্ধপানে
মায়াকোভস্কির ট্রাউজারপরা মেঘেরা
প্যারেড করে এগিয়ে যাচ্ছে শহরের দিকে।

ওখানে জড়ো হচ্ছে রিকশাওয়ালা,
সিএনজি চালক, গৃহকর্মী অনেকেই ।
গারমেন্টসের এক ঝাঁক টগবগে তরুণ
হাতে লাল ঝাণ্ডা নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে।
মেঘেদের পায়ে রক্তাক্ত শেকল
এখানে কেউ সত্যি কথা বলে না।
নিজেকে চরিতার্থ করার জন্য
এর মুকুট পরানো হচ্ছে তার মাথায়
তার মুকুট পরানো হচ্ছে এর মাথায়
মায়াকোভস্কিও লেলিনের প্রশংসা শুনে
ভুলতে বসেছে অপেক্ষার যণ্ত্রণা,
শহরটা ক্রমশও এগিয়ে যাচ্ছে
সকলের চোখ লাল কুঠির ছাদ বরান্দায়
ওখানে অনেক বাজি পুড়ছে
শিশুরা আনন্দ করছে নতুন বছরের প্রথম প্রভাতে।
তুমিও অপেক্ষা করছো
মায়াকোভস্কির দেখা পাবে বলে।